সাংসদ নয়, ভাই সম্বোধন করাে : শামীম ওসমান

সাংসদ নয়, ভাই সম্বোধন করাে : শামীম ওসমান

উঠান বৈঠকে উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে কথা বলছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান। সামনে বসে থাকা এক যুবক সাংসদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বললেন, “আমার কিছু কথা আছে”।

শামীম ওসমান মাথা নেড়ে সায় দিলেন। ওই যুবক বলেন, “মাননীয় সাংসদ”। থামিয়ে দিলেন শামীম ওসমান বললেন, “সাংসদ নয় ভাই সম্বোধন করে বলো”।
যুবক আবার শুরু করে বললেন, “এ কথাটাই বলতে চেয়েছিলাম আপনার সাথে কথা বলতে গেলে মনে হয় না আপনি একজন সাংসদ, ভাই ই মনে হয়। তাই তো সাহস করে আমরা কথা বলতে পারি”।

ওই যুুবক শামীম ওসমানকে আরো বলেন, “শ্রদ্ধেয় ভাই মানুষ তার কাছে চায়, যার কাছে গেলে পায়। আপনি আমাদের এলাকায় নতুন স্কুলের ভবন করেছেন। রাস্তাগুলো আরসিসি ঢালাই করে দিয়েছেন। অনেক বাড়ি শাখা গলি পর্যন্ত সলিং করে দিয়েছেন। আপনাকে কৃতজ্ঞতা না জানালে অকৃতজ্ঞ মনে হবে”।

বুধবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ফতুল্লার এনায়েতনগর ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের শাসনগাঁও মোল্লাবাড়ি ও নয়াবাজার এলাকায় উঠান বৈঠক করেন ওই সাংসদ। ওই সময় শাসনগাঁও উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

আমরা বিশ্বাস করি, “আপনি যে দলের হোন সেই দলের আপনি অত্যন্ত প্রভাবশালী। দেশের অন্যান্য সাংসদের মত নারায়ণগঞ্জে উন্নয়ন কাজ আনতে আপনাকে হিমশিত খেতে হয় না। আমাদের জন্য আপনি কাজ করেছেন আরো করবেন। আপনার মত একজন জনপ্রতিনিধি পেয়ে আমরা ধন্য।

ওই সময় উপস্থিত সভাই করতালি দিতে চাইলে শামীম ওসমান থামিয়ে দিয়ে বলেন, “বাবা আর ভাই আর যাই বলি, আমি আমার মেয়েটাকে অনেক ভালবাসি। পৃথিবীর প্রত্যেকটি পিতাই তার সন্তানদেরকে ভালবাসে। আমি নারায়ণগঞ্জটাকে আমার মেয়ের মত ভালবাসি। তাই চেষ্টা করে যাচ্ছি। তোমাদের জন্য কিছু করতে”। আমার কিন্তু মন ভরেনি। ৭ হাজার ৪শ' কোটি টাকার উন্নয়ন এনেছি নারায়ণগঞ্জে। আরো করতে হবে। নারায়ণগঞ্জকে সারাদেশে মডেল হিসাবেই দাঁড় করাতে হবে ইনশাল্লাহ।

তোমাকে (ওই যুবককে) এবং আপনাদের সবাইকে এক নারীর কথা বলি, “উনি সব হারিয়েছেন সব। বাবা- মা ভাই বোন সবাই। চোখের জল শুকিয়ে গেছে তার। তার এই কষ্ট ভোলার মত কোন পন্থা নেই। কিন্তু জানেন তিনি ওই কষ্ট কখন ভুলে থাকতে পারেন? যখন দেখেন এই বাংলার মানুষ তার মহান পিতার স্বপ্নের উন্নয়ন বাস্তবায়ন উপভোগ করছে। আপনাদের মুখে হাসি দেখলে তার প্রাণ ভরে যায়। সে আমার মাতৃতুল্য বোন। আপনার আমার সকলের আশার আলো শেখ হাসিনা। ভাই তুমি ও তোমার পরিবার তোমরা সকলেই ওই নারীর জন্য দোয়া কর। তার বয়স হয়ে গেছে। তিনি শুধু দোয়া চান। আর দেশকে গড়তে চান স্বপ্নের মত করে।

ওই সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা সাফায়েত আলম সানি, মিজানুর রহমান সুজন, সালাউদ্দিন আহাম্মেদ, আসাদুজ্জামান, এম শওকত আলী, এহসানুল হক নীপু, শাহাদাত হোসেন ভুইয়া সাজনু, শাহ নিজাম, এহাসানুল হাসান নিপু, মামুন আহাম্মেদ ইমন, আফজাল হোসাইন প্রমুখ।