প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়েতে স্মার্টফোন ‘নিষিদ্ধ’

প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়েতে স্মার্টফোন ‘নিষিদ্ধ’

সকল অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও মার্কিন সংগীতশিল্পী নিক জোনাসের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে। প্রথমে হিন্দুরীতিতে ও পরে খ্রিষ্টানরীতিতে বিয়ে করবেন তারা। আলোচিত এ বিয়ের অনুষ্ঠানকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তবে তাদের একটি সিদ্ধান্ত ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়েতে কোনো স্মার্টফোন নিয়ে ঢুকতে পারবেন না অতিথিরা। অনুষ্ঠানের কোনো ছবিও তোলা যাবে না বলে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, দুটি মার্কিন এবং একটি ভারতীয় ম্যাগাজিন সংস্থা ইতিমধ্যেই প্রিয়াঙ্কা-নিকের সঙ্গে বিয়ের ছবির জন্য চুক্তি করেছে। ফলে বিনা অনুমতিতে এই হাই প্রোফাইল দম্পতির কোনো ছবি বাইরে আসবে না বলেও স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে গোটা উমেদ ভবন জুড়ে জ্যামার লাগানো হয়েছে। কেউ যাতে কোনোভাবে প্রিয়াঙ্কা, নিকের ছবি তুলতে না পারে।

তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও দীপিকা, রণবীরের বিয়েতে মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ করে দেন বলিউডের এই তারকা জুটি।

এছাড়া প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ের জন্য উমেদ ভবনের নিরাপত্তা রক্ষীদের ইতোমধ্যেই ৫ দিনের ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। বিয়ের অনুষ্ঠানে শুধুমাত্র প্রিয়াঙ্কা-নিকের নিয়োগ করা নিরাপত্তা রক্ষীরাই থাকবেন। পাশপাশি দায়িত্বে থাকাকালীন নিরাপত্তারক্ষীরাও স্মার্টফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। তাদেরকে একটি করে সাধারণ ফোন ব্যবহারের জন্য দেওয়া হবে।

জানা গেছে, পূজার আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার পর যোধপুরের উদ্দেশ্য রওনা দেবেন নিক-প্রিয়াঙ্কা। সেখানেই হবে এই জুটির সংগীত, মেহেদী, হলুদ ও বিয়ের অনুষ্ঠান।

আজ বৃহস্পতিবার যোধপুরের উমেইদ ভবন প্যালেসে শুরু হওয়া তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা চলবে ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত। যোধপুর যাওয়ার আগে ভারতের মুম্বাইয়ের ভারসোভায় অবস্থিত প্রিয়াঙ্কার পুরান বাড়িতে অনুষ্ঠিত হবে গণেশ পূজা। যেখানে অংশ নেবেন নিক-প্রিয়াঙ্কা। ইতিমধ্যে সেখানে পৌঁছে গেছেন তারা।

এসময় আরও উপস্থিত থাকবেন চোপড়া ও জোনাস পরিবারের সদস্যরা। পারিবারিক এই পূজার মধ্য দিয়েই শুরু হতে যাচ্ছে এই তারকা জুটির বিয়ের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা।