চোখ ডলার ৭টি মারাত্মক ঝুঁকি

 চোখ ডলার ৭টি মারাত্মক ঝুঁকি

অনেক সময় আমরা চোখ ডলি। এতে সাময়িকভাবে স্বস্তি অনুভব হলেও এটি স্থায়ী ক্ষতির কারণ হতে পারে।

যদি আপনার চোখে চুলকানি থাকে অথবা সারাদিন কম্পিউটার স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে তাকেন, তখন মাঝেমাঝে চোখ ডলনে স্বস্তি অনুভূত হয়। এই স্বস্তি অনুভূতির একটি কারণ রয়েছে: চোখ ডললে ভ্যাগাস নার্ভ উদ্দীপ্ত হয়, যা আপনার হার্টবিট ধীর করতে পারে এবং স্ট্রেস থেকে মুক্তি দিতে পারে।
কিন্তু প্রায় সময়ই চোখ ডললে বা কচলালে উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়ে থাকে, যেমন- চোখের রোগ সৃষ্টি হতে পারে অথবা বর্তমান অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে অথবা ইনফেকশনের ঝুঁকি বৃদ্ধি পেতে পারে। এখানে চোখ ডলার ফলে সৃষ্ট সাত ধরনের ক্ষতি নিয়ে আলোচনা করা হলো।

১. মারাত্মক চোখের রোগ

ইউনিভার্সিটি অব উতাহ’র অপথ্যালমোলজি বিভাগের অধ্যাপক মার্ক মিফলিন বলেন, ‘দীর্ঘসময় ধরে চোখ ডলার ফলে কর্নিয়া দুর্বল এবং বিকৃত হয়ে যায়- কর্নিয়া বিকৃত হওয়াকে কেরাটোকোনাস বলে।’ কর্নিয়াল টিস্যুতে অনবরত ডললে এটিকে পাতলা করে এবং অধিক শঙ্কু-আকৃতির হয়ে যায়। যথেষ্ট ড্যামেজের ক্ষেত্রে আপনার কর্নিয়াল ট্রান্সপ্লান্ট প্রয়োজন হতে পারে।

২. কর্নিয়ায় স্ক্র্যাচ

চোখে আইল্যাশ বা চোখের পাতার লোম অথবা ধূলিকণা পড়া অস্বস্তিকর। এটি চোখ ডলতে প্রলুব্ধ করে। কিন্তু এর ফলে চোখের অবস্থাকে আরো খারাপ হতে পারে। এর ফলে আপনি কর্নিয়াতে স্ক্র্যাচ হওয়ার ঝুঁকিতে থাকেন-এটি একটি সাধারণ অবস্থা, যা একদিন বা দুই দিনের মধ্যে সেরে ওঠে, কিন্তু চিকিৎসা করা না হলে ক্ষত হতে পারে। মায়ো ক্লিনিকের মতে, এর পরিবর্তে চোখ পরিষ্কার করার জন্য পানি বা স্যালাইন ব্যবহার করুন।

৩. গ্লুকোমা আরো খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা

ইউনিভার্সিটি অব নিউ সাউথ ওয়েলসের অন্তর্গত স্কুল অব অপটোমেট্রি অ্যান্ড ভিশন সায়েন্সের অধ্যাপক চার্লস ম্যাকমোনিস বলেন, ‘যদি আপনার ইতোমধ্যে চোখের জটিল রোগ গ্লকোমা থাকে, তাহলে চোখ ডলনে এটি আরো খারাপ হবে।’ চোখের সামনে তরল জমার কারণে গ্লকোমা হয়ে থাকে, যা অপটিক নার্ভকে ড্যামেজ করে এবং শেষপর্যন্ত অন্ধত্ব সৃষ্টি করে। চোখ ডলনে সেখানে রক্তপ্রবাহ ফিরে আসা বিঘ্নিত হয়, যার ফলে নার্ভ ড্যামেজ হয় এবং চোখের দৃষ্টিশক্তি স্থায়ীভাবে হারিয়ে যায়।

৪. মায়োপিয়া আরো খারাপ হতে পারে

অগ্রগতিশীল মায়োপিয়া (মায়োপিয়াকে ক্ষীণ দৃষ্টি বা স্বল্প দৃষ্টি বলে) আছে এমন লোকদের চোখ ডলনে দৃষ্টিশক্তি আরো খারাপ হতে পারে।

৫. চোখে ইনফেকশন হওয়ার সম্ভাবনা

হাত যতবারই ধুয়ে থাকুন অথবা জীবাণুমুক্ত করুন না কেন, এগুলো প্রতিদিন হাজার হাজার জীবাণুর সংস্পর্শে আসে। হাত দিয়ে চোখ স্পর্শ করলে হাতের ব্যাকটেরিয়া চোখে যেতে পারে, যা কনজাঙ্কটিভাইটিস বা পিংক আই (যাকে চোখ ওঠা রোগ বলে) সৃষ্টি করতে পারে, আমেরিকান অপটোমেট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের মতে। যদি আপনার চোখ ইনফেক্টেড হয়, তাহলে চোখে গরম ভাপ এটি উপশমে সাহায্য করতে পারে।

৬. চোখের পাতা ঢিলা হয়ে যেতে পারে

চোখ ডললে শুধু চোখের গোলকই নয়, চোখের পাতাও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ডা. মিফলিন বলেন, ‘চোখ ডলার ফলে সময়ের পরিক্রমায় চোখের ইলাস্টিসিটি হারিয়ে যেতে পারে। এটি সমস্যা কম হলেও না এমন না হওয়াটাই বাঞ্চনীয়। কারণ কোনো শারীরিক সমস্যা-ই স্বস্তিকর নয়।’

৭. ব্লাডশট আই ও ডার্ক সার্কেল হতে পারে

যদি আপনি চোখ ডলেন, আপনার চোখের ছোট রক্তনালী ফেটে যেতে পারে। এর ফলে ব্লাডশট আই বা রেড আই (লাল চোখ) হতে পারে, ওয়েবএমডি ডটকম অনুসারে। এরপর রক্ত পার্শ্বস্থ টিস্যুতে প্রবাহিত হবে, যার ফলে আপনার চোখের নিচে ডার্ক সার্কেল বিকশিত হতে পারে।