নুসরাত হত্যাকাণ্ড, মাকসুদুর রহমানের ৫দিন রিমান্ড

নুসরাত হত্যাকাণ্ড, মাকসুদুর রহমানের ৫দিন রিমান্ড

খবর ডেস্ক :: মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে আজও উত্তপ্ত ছিল ফেনীর সোনাগাজী। সকালে সোনাগাজীর বিভিন্ন স্কুল, মাদ্রাসা, নুসরাতের স্বজন, পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের হাজার হাজার জনগণ সোনাগাজীর জিরো পয়েন্টে বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভ শেষে তারা মানববন্ধনে মিলিত হয়।

এসময় বক্তারা নুসরাতের শ্লীলতহানি ও হত্যার ঘটনায় সোনাগাজী সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাসহ সকল অপরাধীদের সনাক্ত করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন। কোন ভাবে যেন মামলা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত না হয় সে জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
একই দাবিতে ফেনী ফেনী শহরেও বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন।
এইদিকে নুসরাত হত্যাকান্ড মামলার এজহারভুক্ত আসামি পৌর কাউন্সিলর মাকসুদুর রহমানের ৫দিনের রিমান্ড দিয়েছে সিনিয়র জ্যুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শরাফ উদ্দিনের আদালত।

বৃহস্পতিবার পিবিআই মাকসুদুর রহমানকে আদালতে তুলে ৭দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সোমবার শুনানির দিন ধার্য্য করেন। আজ তার ৫দিনের রিমান্ড দেয়া হয়। গত ৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত আলিমের আরবি পরীক্ষা প্রথম পত্র দিতে গেলে মাদ্রাসায় দুর্বৃত্তরা গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এঘটনায় দগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৫দিন পর বুধবার রাতে মারা যায়। বৃহস্পতিবার বিকেলে তার জানাযা শেষে পারিবারিক
কবরস্থানে দাফন করা হয়।
এঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে প্রধান আসামি করে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জনকে আসামি করে নুসরাতে ভাই নোমান মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় এজহার নামীয় ৭জনসহ এ পর্যন্ত ১৩জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সৌজন্যে: বিডি-প্রতিদিন