জাবি ছাত্রের অকাল মৃত্যুতে মঙ্গল শোভাযাত্রা বাতিল

জাবি ছাত্রের অকাল মৃত্যুতে মঙ্গল শোভাযাত্রা বাতিল

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৫তম ব্যাচের ইংরেজি বিভাগের ছাত্র মো. নূরুজ্জামান আকস্মিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। শনিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল থেকে একটি বেসরকারি মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

নূরুজ্জামানের অকাল মৃত্যুতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ রোববার বাংলা নববর্ষের পূর্ব নির্ধারিত মঙ্গল শোভাযাত্রা কর্মসূচি বাতিল করেছেন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন কলাভবন চত্বরে মৃৎমঞ্চে নূরুজ্জামানের প্রতি শোক প্রকাশ করে মঙ্গল শোভাযাত্রা কর্মসূচি বাতিলের সিদ্ধান্তের কথা জানান।

এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, ইংরেজি বিভাগের মেধাবী ছাত্র নূরুজ্জামানের অকালে চলে যাওয়া আমাদের জন্য একটি কষ্টের বিষয়। নূরুজ্জামানের অকাল মৃত্যুতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও তার পরিবারের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হলো। উপাচার্য নূরুজ্জামানের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে তার আত্মার শান্তি কামনা করেন। এ সময় নূরুজ্জামানের প্রতি শোক ও সম্মান জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্র সূত্র জানায়, ইংরেজি বিভাগের ছাত্র নূরুজ্জামান শনিবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার দিকে চিকিৎসা কেন্দ্রে এসে ডাক্তারের কাছে পেটে ব্যথার কথা বলেন। এ সময় ডাক্তার তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিয়ে তাৎক্ষণিক সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন। তাকে হাসপাতালে পাঠানোর জন্য একটি অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত করা হয়। কিন্তু নূরুজ্জামান সুস্থ বোধ করছেন জানিয়ে হাসপাতালে যেতে রাজি না হয়ে চিকিৎসা কেন্দ্রের বেডে শুয়ে আরও অপেক্ষা করতে থাকেন। ডাক্তার নূরুজ্জামানের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে কয়েকবার তাকে হাসপাতালে যাওয়ার তাগিদ দেন।

এমন পরিস্থিতিতেও নূরুজ্জামান হাসপাতালে যেতে রাজি না হলে ডাক্তার তাকে আর দেরি না করে রাত আনুমানিক পৌনে ৯টার দিকে এনাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালে পৌঁছানোর পর জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নূরুজ্জামানকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

রাত ১টার দিকে নূরুজ্জামানের মরদেহ বিশ্ববিদ্যালয়ে আনা হয়। নতুন কলাভবন চত্বরে তার আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়। পরে তার পরিবারের সদস্যদের ইচ্ছা অনুযায়ী নূরুজ্জামানের মরদেহ গ্রামের বাড়ি নীলফামারীতে পাঠানো হয়।

সৌজন্যে : জাগোনিউজ