ইমরান খানের পোষ্যদের নিয়ে উইকিপিডিয়ায় 'নতুন পেজ'

ইমরান খানের পোষ্যদের নিয়ে উইকিপিডিয়ায় 'নতুন পেজ'

এখনও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেননি, কিন্তু তার আগেই তার পোষ্যরা জায়গা পেয়ে গেল উইকিপিডিয়াতে। পাকিস্তানের ভবিষ্যৎ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পোষ্যদের নিয়ে উইকিপিডিয়ায় নতুন পেজ খোলা হয়েছে। মানে কেউ যদি সাবেক এই ক্রিকেটারের পোষ্যদের নিয়ে যদি কিছু জানতে চান, তবে এই উইকিপিডিয়া অবশ্যই তাদের সাহায্য করবে।

জানা গেছে, ইমরান খানের মোটি, শেরনি, পিডু, ম্যাক্সিমাসসহ পাঁচটি পোষা কুকুর রয়েছে। উইকিপিডিয়ার তালিকানুযায়ী শেরু হল ইমরান খানের পঞ্চম পোষ্য। যদিও পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও টিভির রিপোর্ট অনুযায়ী, ইমরান খান জানিয়েছিলেন যে চলতি বছরের এপ্রিলেই মারা যায় শেরু।
তবে ম্যাক্সিমাস এখনও তার সঙ্গে থাকে নাকি তার দ্বিতীয় সাবেক স্ত্রীয়ের সঙ্গে থাকে সে বিষয়টি এখনও স্পষ্ট নয়।

উইকিপিডিয়ার এক কর্মকর্তা বলেন, ‘‌বেশ কিছু সময় ধরেই ইমরান খানের পোষ্যদের নিয়ে মানুষের মধ্যে কৌতুহল দানা বেঁধেছে। তাই আমাদের মনে হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর পোষ্যদের নিয়ে আলাদা করে উইকিপিডিয়া পেজ হওয়া দরকার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের পোষ্যদের নিয়ে আমাদের পেজ রয়েছে।

ইমরান খানের পোষ্যদের জন্মসহ অন্যন্য তথ্য বিভিন্ন সূত্র মারফত জোগাড় করে এই উইকিপিডিয়া পেজ তৈরি করা হয়েছে। উইকিপিডিয়ার সেই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘‌প্রধানমন্ত্রীর পোষ্যদের নিয়ে হঠাৎ করেই মানুষের মধ্যে আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা আশা করব, তার পোষ্যদের নিয়ে তিনি আরও নতুন তথ্য আমাদের দেবেন।’‌

ডেইলি মেইলের রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৫ সালে ইমরান খানের পোষ্যদের জন্যই তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী রেহাম খানের সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেন রেহাম খান। সূত্রের খবর, রেহাম ইংল্যান্ড থেকে বেলজিয়াম শেপার্ড ম্যাক্সিমাসকে কেনেন এবং তাকে নিয়ে ইসলামাবাদে আসেন।

২০১৫ সালে রেহাম-ইমরানের বিয়ের ১০ মাস পর্যন্ত সব সাক্ষাতকার এবং ছবিতেই ম্যাক্সিমাসকে দেখা যেত। ইমরানের সঙ্গে তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রীর বিচ্ছেদের পর বেশ কিছু সূত্র মারফত জানা গেছে যে রেহাম ম্যাক্সিমাসকে তার সঙ্গে করে নিয়ে যায়।

২০১৮ সালের এপ্রিলেও ফের ইমরানের পোষ্যদের নিয়ে ঝামেলার সৃষ্টি হয় তার তৃতীয় স্ত্রী বুশরা মানেকার সঙ্গে। তবে উইকিপিডিয়াতে ইমরান খানের পোষ্যদের জন্ম এবং অন্যান্য তথ্যসহ আর কি কি রয়েছে, তা জানতে গেলে অবশ্যই উইকিপিডিয়া খুলতে হবে।