হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে প্রেম নিয়ে যা বললেন উর্বশী

হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে প্রেম নিয়ে যা বললেন উর্বশী

সিলেটভিউ ডেস্ক :: ক্যারিয়ারটা ঠিক মনের মতো করে গুছিয়ে তুলতে পারছেন না সুন্দরী অভিনেত্রী উর্বশী রাওতেলা। খুব বেশি সিনেমা যেমন পাননি তেমনি সফল সিনেমার সংখ্যাও প্রায় নেই। একটি ব্যবসা সফল সিনেমার জন্য কী না করেছেন এই নায়িকা।

অর্ধনগ্ন হয়ে বিছানায় রগরগে দৃশ্যেও অভিনয় করেছেন। আইটেম গানেও নেচেছেন খোলামেলা হয়ে। তবুও সাফল্যের কূলে ভিড়েনি চেষ্টার তরী। এসব কারণে হতাশা বহুবার তাকে ঘিরে ধরেছে।

হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর নিজেকে খোলামেলা করে পর্দায় আনবেন না। এক কথায় স্বস্তা সাফল্যের স্রোতে গা ভাসাতে নিজের শরীরকে মূলধন করবেন না। একটু ভারী গল্পে ভিন্ন রকম চরিত্রে তিনি কাজ করবেন। যেখানে মজবুত অভিনয়ের সুযোগ থাকবে। সেই সুযোগ তিনি কবে পাবেন সেটা সময় বলবে।

আপাতত উর্বশী আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটের অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়ার প্রেমিকা হিসেবে। একদমই তাই খবরটা। সবখানে রটে গেছে উর্বশী নাকি হার্দিকের মন কেড়েছিলেন। তারা অনেকদিন চুটিয়ে প্রেম করেছেন।

ক্রিকেটারদের সঙ্গে বলিপাড়ার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। নীনা গুপ্তা, শর্মিলা ঠাকুর থেকে হাল আমলের আনুশকা শর্মা, সাগরিকা ঘাটগে পর্যন্ত প্রচুর উদাহরণ। আবার এমনও অনেক উদাহরণ আছে যেখানে সম্পর্ক বিয়ে অবধি গড়ায়নি। কিন্তু মাখো মাখো প্রেম চলেছে অনেকদিন।

সেই তালিকায় নাকি আছেন উর্বশী রাউতেলা ও হার্দিক পাণ্ডিয়াও। কিন্তু অভিনেত্রীর বক্তব্য, তার আর হার্দিকের নাকি কোনও সম্পর্ক ছিল না। আজও নেই। সবই মিথ্যে রটনা।

ইউটিউবের একটি স্ক্রিনশট নিয়ে একথা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন উর্বশী। ভিডিওয় হার্দিককে উর্বশীর ‘প্রাক্তন বয়ফ্রেন্ড’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। উর্বশীর অনুরোধ, ইউটিউবে এই ধরনের হাস্যকর ভিডিও যেন পোস্ট না করা হয়। তিনি এও বলেছেন, তার পরিবারকে এর জন্য জবাবদিহি করতে হয়। কেউ এই ধরনের ভিডিও পোস্ট করার সময় যেন এই কথাগুলি মাথায় রাখেন, অনুরোধ উর্বশীর।

প্রসঙ্গত, গত বছর উর্বশী রাউতেলা ও হার্দিক পাণ্ডিয়াকে একটি পার্টিতে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল। তারপর থেকেই গুজব ছড়াতে শুরু করে তারা নাকি একে অপরের প্রেমে পড়েছেন। কিন্তু তখন হার্দিক এলি আব্রামের সঙ্গে ডেট করছিলেন। তাই গুজব আরও জমে ওঠে। কানাঘুষো শুরু হয়, তবে কি এ ত্রিকোণ প্রেমের উপাখ্যান? অবশ্য উর্বশী নিজে মুখ খুলে নিজেকে সেই ত্রিকোণ প্রেম থেকে নিজের নামটি কেটে দিয়েছেন।