ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান: নাসিম

ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান: নাসিম

সিলেটভিউ ডেস্ক :: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ফিল্মি স্টাইলে প্রধান রাস্তায় মশা মারার ওষুধ ছিটিয়ে কাজ হবে না।এডিস মশার যেখানে জন্ম সেসব জায়গায় কার্যকর ওষুধ প্রয়োগ করেন। ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রয়োজনে সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান। একযোগে ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে নামতে হবে, সবার সম্মিলিত উদ্যোগেই ডেঙ্গু নির্মূল করা সম্ভব।

বুধবার (৩১ জুলাই) দুপুরের জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ সাম্যবাদী দল (এমএল) আয়োজিত ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সামাজিক অস্থিরতা’ শীর্ষক সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের বাচ্চাদের সংখ্যা বেশি। অনেক অভিভাবকই বাচ্চাদের স্কুলে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন। কিছুদিন পর ঈদের ছুটিতে এমনিতেই স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হবে। তাই আমি শিক্ষামন্ত্রীকে অনুরোধ করছি, আপনারা স্কুল-কলেজে ছুটি ঘোষণা করুন।

আওয়ামী লীগের সব সহযোগী সংগঠন এবং ১৪ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এখন মিটিং-মিছিলের দরকার নেই। আপনারা প্রতিদিন নিজেদের এলাকায় ডেঙ্গু নিধনে কাজ করা হচ্ছে কি-না পর্যবেক্ষণ করুন। ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে সব শক্তি নিয়ে সমন্বিতভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ুন।

যার যার অবস্থান থেকে যেভাবে সম্ভব ডেঙ্গু নির্মূলে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দল মত ভুলে সম্মিলিতভাজে

সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সিনেমার স্টাইলে মেইন রাস্তায় মশা মারার ওষুধ দিলে কাজ হবে না। এডিস মশার যেখানে জন্ম সেসব জায়গায় ওষুধ প্রয়োগ করেন। প্রয়োজনে সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান ডেঙ্গু নির্মূলে। সবার সম্মিলিত এবং কার্যকরী উদ্যোগের মাধ্যমে ডেঙ্গু নির্মূল করা সম্ভব। কারণ বাঙালির জন্মই হয়েছে জয়ী হওয়ার জন্য।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক শিল্পমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া। সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, ঢাকা মহানগর ১৪ দলের সমন্বয়ক ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য এজাজ আহমেদ মুক্তা, সাম্যবাদী দলের পলিট ব্যুরোর সদস্য লুতফর রহমান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদত হোসেন প্রমুখ।